বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

নারী/শিশু নির্যাতন

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের প্রতিবেদন : ছয় মাসে হত্যা ও নির্যাতনের শিকার ৬২৯ শিশু

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের প্রতিবেদন : ছয় মাসে হত্যা ও নির্যাতনের শিকার ৬২৯ শিশু

দেশের বিভিন্ন স্থানে গত ছয় মাসে ৬২৯ জন শিশু বিভিন্ন ধরনের নির্যাতন ও হত্যার শিকার হয়েছে। এর মধ্যে হত্যা করা হয়েছে ১৩২ জনকে। ৩৭ জন শিশু আত্মহত্যা করেছে। নিখোঁজের পর ১৮ জন এবং বিভিন্ন সময়ে আরো ৪৪ জন শিশুর লাশ উদ্ধার হয়েছে। এছাড়া রহস্যজনকভাবে মৃত্যুবরণ করেছে ১৫ জন শিশু। বেসরকারি মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) গতকাল শুক্রবার এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুন মাস পর্যন্ত বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবর ও আসক এর নিজস্ব সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে বলে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ধর্ষণের আগে ভিডিও করার কথা স্বীকার সাফাতের

ধর্ষণের আগে ভিডিও করার কথা স্বীকার সাফাতের

দ্য রেইন ট্রি হোটেলে ধর্ষণের আগে ভিডিও করার কথা স্বীকার করলেন আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ সেলিমের পুত্র সাফাত আহমেদ। রবিবার রিমান্ডের দ্বিতীয় দিন ডিবি কর্মকর্তাদের জেরার মুখে সাফাত বলেন, অভিযোগকারী দুই ছাত্রীর সঙ্গে আসা শাহরিয়ার নামে এক চিকিত্সককে মারধরের দৃশ্য তারা ভিডিও করেছে। তবে ধর্ষণ করার আগে গাড়ি চালক বিল্লাল হোসেন ঐ দুই ছাত্রীর সঙ্গে তাদের ওঠাবসার দৃশ্য ভিডিও করেছেন। ধর্ষণ করার সময় গাড়িচালক ভিডিও করেছে কিনা তার জানা নেই। হোটেলের ৭০১ নম্বর কক্ষে মোবাইল ফোনে ভিডিও করার দৃশ্য এখনও পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি।

ছয় মাসে যৌতুকের কারণে ৮০ নারীকে হত্যা, নির্যাতিত ৮৯- মহিলা পরিষদের তথ্য

ছয় মাসে যৌতুকের কারণে ৮০ নারীকে হত্যা, নির্যাতিত ৮৯- মহিলা পরিষদের তথ্য

থেমে নেই যৌতুকের কারণে নারী নির্যাতন ও হত্যা। চলতি বছরের গত ছয় মাসে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে ৮০জন নারীকে এবং শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে ৮৯জন নারীকে। এতো গেল কেবল কয়েকটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় উঠে আসা আলোচিত ঘটনা। কিন্তু এর বাইরেও যে দিনে কত হাজার নারী যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন তা কটি গণমাধ্যমেই বা উঠে আসে। শুধু জুন মাসে যৌতুকের কারণে প্রাণ দিতে হয়েছে ১৮ নারীকে। নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে আরো ৩৩ জনকে। সম্প্রতি মহিলা পরিষদের প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। জনসংখ্যা গবেষণা ও প্রশিক্ষণ জাতীয় ইনস্টিটিউট (নিপোর্ট) এর করা ‘বাংলাদেশ ডেমোগ্রাফিক এন্ড হেলথ সার্ভে ২০০৭’ এর গবেষণার প্রতিবেদনে জানা যায়, দেশের ৬০ ভাগ স্বামী তাদের স্ত্রীকে নির্যাতন করে থাকে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যৌতুক একটি সামাজিক অভিশাপ। প্রতিবছরই যৌতুকের কারণে নির্যাতন ও হত্যার শিকার হচ্ছেন প্রায় হাজারখানেক নারী। কেবল গরিবের ঘরে নয় মধ্যবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত, শিক্ষিত, ধনী সব ধরনের পরিবারেই এখন যৌতুকের অভিশাপ ছড়িয়ে পড়েছে।

রাজশাহীর পবা থানা এলাকায় শিশু নির্যাতনের পর ভিডিও

রাজশাহীর পবা থানা এলাকায় শিশু নির্যাতনের পর ভিডিও

মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে রাজশাহীর পবায় ঘরের মধ্যে জাহিদ (১৫) ও ইমন আলী (১৩) নামের দুই কিশোরকে হাত-পা বেঁধে পিটিয়ে ভিডিও করার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবারের বিকালের এ ঘটনায় শনিবার দিবাগত রাতে পবা থানায় এক সেনা ও একজন র্যা ব সদস্যসহ ১৩ জনকে আসামি করে মামলা করেছেন এক কিশোরের বাবা। রবিবার ভোরে ওই মামলায় উপজেলার চৌবাড়িয়া গ্রাম থেকে আজিজুর রহমান (৩০) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে পবা থানার ওসি শরিফুল ইসলাম জানিয়েছেন। পিটুনিতে আহত দুই কিশোরের মধ্যে জাহিদ হাসান বাগসারা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। তাকে পবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পিটুনির শিকার আরেক কিশোর ইমনকে খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন পবা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শরিফুল ইসলাম। তিনি জানান, জাহিদের বাবা বাগসারা এলাকার ইমরান আলী শনিবার রাতে ১৩ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। এরপর রাববার ভোরে আজিজুর রহমান নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে সিলেটে শিশু রাজন ও খুলনায় রাকিবকে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছিল। এসব ঘটনার বিচার শেষ হওয়ার তিন মাসের মাথায় আবারও নির্যাতনের এই ঘটনা ঘটল।

নবীগঞ্জে গাছে বেঁধে শিশু নির্যাতন

নবীগঞ্জে গাছে বেঁধে শিশু নির্যাতন

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে পত্রিকার হকারকে গাছের সঙ্গে বেঁধে অমানবিক নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এ নির্যাতনের দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে তা অনলাইনে গণযোগাযোগ মাধ্যমেও ছেড়ে দেয়া হয়। আর তাতেই সর্বত্র তোলপাড় শুরু হয়েছে। নির্যাতনের শিকার শিশু দবির হোসেন ওই উপজেলার বনকাদিপুর গ্রামের ইসন উল্লাহর ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় কামারগাঁও বাজার, সাইনবোর্ড, জিয়াপুর ও নতুন বাজার এলাকায় জাতীয় ও স্থানীয় সংবাদপত্র বিক্রি করে আসছে।এলাকাবাসী জানায়, প্রতিদিনের মতো শুক্রবার সকাল ১০টায় কামারগাঁও বাজারের পত্রিকার গ্রাহক মোহাম্মদ চৌধুরীর মালিকানাধীন হাবিব রেস্টুরেন্টে পত্রিকা দিয়ে টাকা চায়। কিন্তু দোকান মালিক টাকা না দেয়ায় সে এক প্যাকেট বিস্কুট নিয়ে যায়। তখন রেস্টুরেন্ট মালিকের ভাই মিছবাহ তাকে ডেকে আনে। পরে তাকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখে। দোকান মালিকের ভাই হকার দবির হোসেনের বিরুদ্ধে বিস্কুট চুরির অভিযোগ এনে মারপিটও করে। ওই দৃশ্য রেজাউল নামের এক যুবক মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে। বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারসহ লোকজন গিয়ে তাকে উদ্ধার করে আনে। এদিকে শিশু নির্যাতনের বিষয়টি অনলাইনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সর্বত্র সমালোচনার ঝড় উঠে।এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি আবদুল বাতেন খান জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ৩ জনকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে এ ব্যাপারে কোন মামলা দায়ের করা হয়নি। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।

২০৪০ সালের আগেই বাল্যবিয়ে নির্মূল : দীপু মনি

২০৪০ সালের আগেই বাল্যবিয়ে নির্মূল : দীপু মনি

২০৪০ সালের আগেই দেশ থেকে বাল্যবিয়ে নির্মূল হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনি। সোমবার ভারত মহাসাগরসহ উপকূলীয় বিভিন্ন দেশের নৌবাহিনীর কর্মকর্তাদের স্ত্রীদের অংশগ্রহণে বাংলাদেশি নারীদের ক্ষমতায়ন বিষয়ে ঢাকায় আয়োজিত এক কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন। এতে বাল্যবিয়ে নির্মূলের ওপর জোর দিয়ে দীপু মনি বলেন, বর্তমান সরকারের রাজনৈতিক অঙ্গীকারের কারণে বাংলাদেশে নারীরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য, চাকরি ও রাজনীতিতে আগের চেয়ে ভালো করছে। কিন্তু এখনও বাল্যবিয়ে চলছে। এটা মেয়েদের ভবিষ্যৎ সক্ষমতাকে ছিনিয়ে নিচ্ছে। বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে দেশে আরও কঠোর আইন প্রণয়ন করা হয়েছে জানিয়ে বাল্যবিয়ের প্রভাব কমে আসছে বলে মন্তব্য করেন বাংলাদেশের প্রথম নারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি। আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত এই সংসদ সদস্য বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪০ সালের মধ্যে বাল্যবিয়ে নির্মূলের অঙ্গীকার করেছেন। কিন্তু আমি মনে করি, এটা তারও আগে ভালোভাবে বন্ধ হবে। উপকূলীয় ৩২ দেশের নৌবাহিনী প্রধান, ঊর্ধ্বতন নৌ কর্মকর্তা এবং সমুদ্র বিষয়ক অনেক আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানদের নিয়ে সোমবার ঢাকার একটি হোটেলে শুরু হয়েছে তিনদিনের দ্বিবার্ষিক সিম্পোজিয়াম, যার উদ্বোধন করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। বাংলাদেশ নৌবাহিনী পরিবার কল্যাণ সংস্থা সিম্পোজিয়ামে অংশ নেয়াদের স্ত্রীদের জন্য নৌ-সদর দপ্তরে এই কর্মশালার আয়োজন করে। এতে অংশগ্রহণকারীদের এক প্রশ্নের জবাবে দীপুমনি নারীর অগ্রগতিতে 'ধর্মের অপব্যাখ্যা' এবং পরিবারগুলোর 'প্রথাগত চিন্তা'কে চ্যালেঞ্জ হিসেবে মন্তব্য করেন।

দিনাজপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

দিনাজপুরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলায় যৌতুকের দাবিতে স্বামী গলায় রশি পেঁচিয়ে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত চায়না বেগম (৩৫) ঘোড়াঘাট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জানা গেছে, প্রায় এক বছর আগে উপজেলার কশিগাড়ী গ্রামের আজিজুল হক প্রেমের সম্পর্ক গড়ে চায়না বেগমকে (৩৫) বিয়ে করেন। প্রসঙ্গত, চায়না বেগম আগের স্বামীর ঘর ছেড়ে আজিজুলকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের দাবিতে চায়না বেগমের উপর শারীরিক নির্যাতন করতে থাকে স্বামী আজিজুল। একের পর এক বায়না ধরতে থাকেন স্ত্রীর কাছে। কয়েক দফা বায়না পরিশোধ করে স্ত্রী। এক পর্যায়ে কানের দুল বিক্রি করেও স্বামীকে খুশি রাখতে চায় স্ত্রী চায়না। কিন্তু আজিজুলের মন কোনোকিছুতেই ভরাতে পারে না স্ত্রী। সর্বশেষ রবিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে আজিজুল শ্বশুর বাড়িতে যায়। এ সময় চায়নার নামে জমি রয়েছে জানতে পেরে আজিজুল তা বিক্রি করে যৌতুক বাবদ টাকা দিতে বলে। কিন্তু রাজি না হলে আজিজুল হক উত্তেজিত হয়ে রশি দিয়ে স্ত্রীর গলায় ফাঁস দিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। চায়না কোনা মতে তার হাত থেকে প্রাণে বেঁচে বাড়ি থেকে দৌঁড়ে পালিয়ে যায়।

ভারতে বাংলাদেশি কিশোরীকে দিয়ে দেহব্যবসা, দালাল গ্রেপ্তার

ভারতে বাংলাদেশি কিশোরীকে দিয়ে দেহব্যবসা, দালাল গ্রেপ্তার

ভারতের চেন্নাইতে এক বাংলাদেশি কিশোরীকে জোর করে আটকে রেখে ধর্ষণ ও তাকে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, এ ঘটনার সাথে জড়িত আরো এক নারীকে খুঁজছে পুলিশ। ওই নারী ভুক্তভোগী ১৫ বছরের কিশোরী রাবেয়ার (ছদ্মনাম) আত্মীয়। গণমাধ্যমটি জানায়, চেন্নাইয়ের তিরুবত্তিয়ার এলাকার আমান কলি রোডের একটি বাড়িতে রাবেয়াকে গত ১৭ জানুয়ারি থেকে আটকে রাখা হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়িটির দেয়াল টপকে সাহায্যের জন্য চিৎকার করতে থাকে সে। স্থানীয়রা ঘটনাটি পুলিশকে জানালে তারা এসে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। রাবেয়া পুলিশকে জানিয়েছে, তাকে অপহরণ করে বাংলাদেশ থেকে ভারতে নিয়ে যাওয়া হয়। তার জবানবন্দির ওপর ভিত্তি করে অপহরণকারী চক্রের দালাল ২৮ বছরের কে টিপুকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। টিপুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে তিরুবত্তিয়ার নারী পুলিশ সংস্থা ‘অল ওমেন পুলিশ’। ভারতীয় আইনের ৩৬৬ (এ) ধারা অনুসারে কিশোরী কন্যা ক্রয় মামলা, ৫০৬ (২) ধারা অনুসারে ভীতি প্রদর্শন মামলা এবং যৌন অপরাধ থেকে শিশুদের সুরক্ষা আইনের ৬ ধারা অনুসারে টিপুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তনু হত্যা: জাবিতে হরতালে পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ৩০

তনু হত্যা: জাবিতে হরতালে পুলিশের লাঠিচার্জ, আহত ৩০

তনু হত্যাসহ সারাদেশে গুম-খুন-ধর্ষণ ও বিচারহীনতার প্রতিবাদে সোমবার সারাদেশে অর্ধদিবস হরতাল পালন করছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট ও সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী ছাত্র ঐক্য। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ সকাল ৭টা থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিষবিদ্যায়ের সামনের মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে প্রগতিশীল ছাত্র ফ্রন্টের নেতাকর্মীরা। এ সময় সড়কের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে সকাল ৯টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শিক্ষার্থীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এতে অন্তত ৩০ জন শিক্ষার্থী আহত হন। তাদের উদ্ধার করে সাভারের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দেশে প্রতি মাসে গড়ে ৪শ নারী-শিশু পাচার!

দেশে প্রতি মাসে গড়ে ৪শ নারী-শিশু পাচার!

ইউনিসেফের তথ্য মতে, বাংলাদেশ থেকে প্রতি মাসে গড়ে ৪শ’ নারী ও শিশু পাকিস্তান, ভারত ও মধ্যপ্রাচ্যে পাচার হয়ে যাচ্ছে। বেসরকারি হিসাব অনুযায়ী, যারা পাচারের শিকার হচ্ছে তাদের ৬০ ভাগেরও বেশি কিশোরী; যাদের বয়স ১২ থেকে ১৬ বছরের মধ্যে। তবে সেন্টার ফর উইমেন অ্যান্ড চিলড্রেন স্টাডিজের তথ্যানুসারে, বাংলাদেশ থেকে প্রতি মাসে ১০০ শিশু এবং ৫০ জনের বেশি নারী বিদেশে পাচার হয়ে যাচ্ছে। এদিকে পুলিশের হিসাব অনুযায়ী, গত বছর (২০১৫) দেশ থেকে ১ হাজার ৮১৫ জন নারী ও শিশুকে বিদেশে পাচার করা হয়েছে। মানবাধিকার কর্মীরা মনে করেন প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি। আইনের সঠিক ব্যবহার, দোষীদের দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের আওতায় আনা এবং ফিরে আসাদের সামাজিক জীবনে পুনর্বাসন করার মধ্য দিয়ে এই অবস্থার উন্নতি হতে পারে।

কেমন আছে ৬ তলা থেকে ফেলে দেয়া শিশুটি?

কেমন আছে ৬ তলা থেকে ফেলে দেয়া শিশুটি?

সমাজের লজ্জা থেকে বাঁচতে ছয় তলার জানালার গ্রিলের ছোট্ট ফোকর দিয়ে নবজাতক শিশুটিকে চেপেচুপে বের করা হয়েছিল। তারপর সব মায়া ত্যাগ করে নিজের সন্তানকে ফেলে দেয় এক কুমারী মা। রাজধানীর বেইলি রোডের ছয় তলা থেকে ফেলে দেয়ার পরও বিস্ময়করভাবে বেঁচে যায় নবজাতকটি। উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় আদ-দ্বীন হাসপাতালে। মঙ্গলবার রাতে তার রক্তচাপ বেশ কমে যাওয়ায় চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। অবশ্য রক্তচাপ বাড়ানোর ওষুধ দেয়ার পর তার অবস্থা এখন স্বাভাবিক বলে জানাচ্ছেন হাসপাতালের চিকিৎসক অধ্যাপক এসএম জাবরুল হক। তিনি জানান, শিশুটির ডান পায়ের হাড় ভেঙে গেলেও সেটা খুব তাড়াতাড়ি জোড়া লেগে যাবে বলে তাদের বিশ্বাস। তবে নতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষায় তার মাথার হাড়েও ফ্র্যাকচার পাওয়া গেছে। মাথার বাইরের অংশে রক্তক্ষরণও হচ্ছে। তবে তিনি বলেছেন, ‘আমরা পরীক্ষা করে দেখছি। আশা করি ঠিক হয়ে যাবে। যদিও ব্রেন টিস্যুতে ক্ষতি হলে ভবিষ্যতে তার সমস্যা হতে পারে।’ শিশুটির বর্তমান অবস্থা নিয়ে ডা. জাবরুল হক আরো বলেন, ‘এতোকিছুর পরও শিশুটির কর্মকাণ্ড এখন স্বাভাবিক নবজাতকের মতোই। বোঝার কোনো উপায় নেই যে, সে এতো বড় একটি দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে এসেছে। এখন আর তেমন কান্নাকাটিও করছে না। এরকম থাকলে আগামী সাত থেকে দশ দিনের মধ্যে তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হবে।’ ভেঙে যাওয়া পায়ের হাড় নিয়ে তিনি বলেন, ‘শিশুটির পায়ের হাড় পুরোপুরি জোড়া লাগতে দু’তিনমাস সময় লাগবে। আর এক বছর পর বোঝাই যাবে না তার পায়ে কিছু হয়েছিল।’ তিনদিন বয়সী এই ছেলে শিশুটিকে এখন ‘বেবি অব আদ-দ্বীন’ নামে ডাকা হচ্ছে। হাসপাতালের সবার কাছে এখন সে খুবই প্রিয় হয়ে উঠছে। একটু সুযোগ পেলেই খোঁজ নিচ্ছে সবাই। ডিউটি শেষে বাসায় ফেরার আগেও শিশুটি দেখে যান তারা। উল্লেখ্য, গত সোমবার জন্ম নেয়ার পরই নিজ সন্তানকে ছয় তলা ভবন থেকে নিচে ফেলে দেয় বিউটি আক্তার (১৬) নামে এক কুমারী মা। পরে দুপুরে স্থানীয়দের খবরের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ নবজাতকটিকে উদ্ধার করে মগবাজারের আদ-দ্বীন হাসপাতালে নিয়ে যায়। আর সেই কিশোরী মাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই পুলিশী হেফাজতে তাকে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। চিকিৎসাধীন বিউটি আক্তার জানায়, তার বাবার নাম আবু বকর প্রামাণিক। গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার নওকর গ্রামে। ঢাকায় বেইলী রোডের ২৬ নম্বর প্রোপার্টিজ মেনশনের ৬ তলায় আজমল হক ও ফিরোজা হকের বাসায় ৯ বছর ধরে গৃহকর্মী হিসেবে কাজ করছে। ৯ থেকে ১০ মাস আগে কুমিল্লায় বড় বোন লিপি আক্তারের বাসায় বেড়াতে যায় বিউটি। সেখানে তার বোনের স্বামী নীরব ঘুমের ওষুধ খাইয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এতে সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে। কিন্তু এ কথা তিনি কাউকে জানতে দেয়নি। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বেইলী রোডের বাসায় সে নিজেই সন্তান প্রসব করে। প্রসবের পর জানাজানির ভয়ে নিজের সন্তানকে ৬ তলা থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়। তবে অলৌকিকভাবে শিশুটি দ্বিতীয় তলার কার্নিশে আটকে যায়। গৃহকর্তা আজমল হক জানান, তারা এ কয়েক মাসে বুঝতেই পারেননি যে বিউটি গর্ভবতী। এমন কোনো ধারণাও তাদের ছিল না। এদিকে বিউটির শরীরের অবস্থাও বেশি ভালো নয়। থেমে থেমে তার রক্তক্ষরণ হচ্ছে। সুস্থ হতে আরো কয়েকদিন লাগবে বলে জানিয়েছেন রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান।